৬:৩৯ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০২০, শুক্রবার | | ১৬ শা'বান ১৪৪১

Developer | ডেস্ক

চেক ক্লিয়ারিং ১০ দিন বন্ধ

চব্বিশ ঘন্টা এটিএম পস খোলা থাকবে

২৬ মার্চ ২০২০, ১২:০৪


করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাধারণ ছুটির দিনগুলোতেও এটিএম, পস ও ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ে আন্তঃব্যাংক লেনদেনের প্লাটফরম এনপিএসবি সার্বক্ষণিক খোলা থাকবে।  আর বেতন-ভাতা দেওয়ার সুবিধার্থে শুধু ১ ও ২ এপ্রিল খোলা থাকবে বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্ক-বিইএফটিএন।  তবে চেক ক্লিয়ারিংয়ে ব্যবহারিত দুইটি প্লাটফরম পুরোদমে বন্ধ থাকবে।  এতে করে আজ বৃহস্পতিবার থেকে ছুটি শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোনো চেক ক্লিয়ারিং হবে না।  গতকাল এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়। 

ব্যাংকিং লেনদেন সীমিত করতে এর আগে গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের অফ-সাইট সুপারভিশন বিভাগ থেকে একটি সার্কুলার জারি করা হয়।  সেখানে বলা হয়, সরকারি সাধারণ ছুটির দিনগুলোতে শুধু নগদ জমা, উত্তোলন ও জরুরি বৈদেশিক লেনদেন করার জন্য সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত সীমিত আকারে ব্যাংকিং সেবা চালু থাকবে।  এক্ষেত্রে অনলাইন সুবিধার ব্যাংকগুলোর এক শাখা থেকে আরেক শাখার দূরত্ব বিবেচনায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক শাখা খোলা রাখতে বলা হয়।  আর অনলাইন সুবিধা না থাকা ব্যাংকগুলোতে নগদ জমা ও উত্তোলনের জন্য সব শাখা খোলা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়। 

গতকাল একই বিভাগ থেকে জারি করা অপর এক সার্কুলারে বলা হয়েছে, বৈশ্বিক মহামারিতে রূপ নেওয়া করোনা ভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণ রোধে সরকার ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে।  ছুটিকালীন সময়ে বিভিন্ন গ্রাহকের প্রকৃত চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাংকের খোলা রাখা শাখায় নগদ জমা ও উত্তোলনের পাশাপাশি ডিডি বা পে-অর্ডার ইস্যু এবং একই ব্যাংকের একই শাখার বিভিন্ন হিসেবের মধ্যে অর্থ স্থানান্তরের কার্যক্রম অব্যাহত রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। 

আর পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগের সার্কুলারে বলা হয়েছে, ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ (এনপিএসবি) প্লাটফরমের কার্যক্রম সার্বক্ষণিক চালু থাকবে এবং সংশ্লিষ্ট লেনদেনের সেটেলমেন্ট সাধারণ ছুটি পরবর্তী কার্যদিবসে সম্পন্ন করা হবে।  আর বাংলাদেশ অটোমেটেট চেক প্রসেসিং সিস্টেম (বিএসিপিএস) ও রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্টের (আরটিজিএস) সব কার্যক্রম ছুটিকালীন সময়ে পুরোপুরি বন্ধ থাকবে।  এর বাইরে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা প্রদানসহ সব ধরনের লেনদেন সম্পন্নের জন্য আগামী ১ ও ২ এপ্রিল বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্ক (বিইএফটিএন) প্লাটফরম শুধু চালু থাকবে।