৫:৫৪ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার | | ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

Developer | ডেস্ক

ডাকাত দলের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোপন বৈঠক আটক ৩

১৭ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৫০


কক্সবাজারের টেকনাফে নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোপন বৈঠকের সময় গতকাল শুক্রবার তিন রোহিঙ্গা ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ।  এ সময় তাদের কাছ থেকে ৪০০ পিস ইয়াবা ও চারটি রামদা উদ্ধার করা হয়। 

জানা গেছে, শালবাগান ২৬ নম্বর ক্যাম্পের মোহা.কবির মাঝির ঘরে একদল ডাকাত গোপন বৈঠক করছিলেন।  গোপন খবরের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় এপিবিএন সদস্যরা।  এ সময় ঘটনাস্থল থেকে কয়েকজন পালিয়ে গেলেও তিনজনকে আটক করেন তারা।  আটককৃতরা হলেন, শালবাগান এফ ব্লকের আব্দুস সালামের ছেলে মো. কবির মাঝি (৫২), ই-ব্লকের ৯৭৪ নম্বর শেডের বাসিন্দা শামসুল আলমের ছেলে ও সালমান শাহ গ্রুপের সদস্য মো. নুরুন্নবী (২৯) এবং কুতুপালং ক্যাম্পের ডি ব্লকের হামিদ হোসেনের ছেলে মো. সৈয়দুল আমিন (২৬)। 

উখিয়া-টেকনাফের ৩৪টি ক্যাম্পে ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বাস করছে।  পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সেখানে রোহিঙ্গাদের একটি অংশ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত।  ক্যাম্পগুলোতে পুরোনোদের পাশাপাশি মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে নতুন ডাকাত ও সন্ত্রাসী বাহিনী।  এসব বাহিনীর বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযানে গেলেই তারা পাহাড়ে আত্মগোপন করে। 

জানা যায়, টেকনাফের নয়াপাড়া-শালবাগান-লেদা ও জাদিমুড়া শিবিরকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী বাহিনী।  সশস্ত্র গ্রুপগুলো প্রায়ই নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।  ফলে সাধারণ মানুষরা থাকেন আতঙ্কে। 

সম্প্রতি আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে দুই গ্রুপের মধ্যে হামলা ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে।  গত কয়েকদিনে সেখানে এক নারীসহ ৯ জন রোহিঙ্গার মৃত্যু হয়েছে।  হামলার সময় ঝুপড়ি ঘর ও দোকানপাট ভাঙচুর করা হয়েছে। 

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান জানান, সন্ত্রাসীদের আস্তানায় অভিযান চালিয়ে তিনজনকে আটক করা হয়েছে।  তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।  আজ সকালে তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়।