৫:১৩ পিএম, ১৪ আগস্ট ২০২০, শুক্রবার | | ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Developer | ডেস্ক

স্যানিটাইজার দৃষ্টিশক্তি কেড়ে নিতে পারে !

২৫ জুলাই ২০২০, ০৭:১১


স্যানিটাইজার ক্ষতিকারক ভাইরাসকে দমন করতে পারে।  কিন্তু সেই দমন মূলক বিষ কী আদৌ শরীরের জন্য যথাযথ! স্যানিটাইজারের মধ্যে থাকে অ্যালকোহল।  ফুড এন্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন হ্যান্ড স্যানিটাইজার থেকে সতর্ক হওয়ার বার্তা দিয়েছে।  স্যানিটাইজারের মধ্যে থাকা টক্সিক অ্যালকোহল শরীর স্বাস্থ্যের সমস্যার পাশাপাশি দৃষ্টি শক্তি কেড়ে নিতে পারে। 

হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ক্রমবর্ধমান ব্যবসা চলছে গোটা বিশ্বজুড়ে।  এফডিএ সতর্ক করে দিয়েছে যে ইথানল (ইথাইল অ্যালকোহল) রয়েছে চিহ্নিত করা বেশ কিছু হ্যান্ড স্যানিটাইজারের মধ্যে।  মিথেনলের সঙ্গে পরীক্ষায় যার ফলাফল পজেটিভ।  যা ‘উড অ্যালকোহল’ নামেও পরিচিত।  প্রকৃতপক্ষে, এফডিএ একটি পুনর্বিবেচনা তালিকা প্রস্তুত করেছে, যার প্রায় ৬৯ টি হ্যান্ড স্যানিটাইজার পণ্য রয়েছে যা তারা গ্রাহকদের ব্যবহার না করার পরামর্শ দিয়েছে।  ১৫ জুলাই, তালিকায় আরও দুটি পণ্য যুক্ত করা হয়েছে। 

২ জুলাই, এফডিএ কমিশনার স্টিফেন এম হান, এমডি এক বিবৃতিতে বলেছিলেন: ‘গ্রাহক এবং স্বাস্থ্যসেবা সরবরাহকারীদের মিথানলযুক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করা উচিত নয়।  এফডিএ অ্যালকোহল ভিত্তিক নিরাপদ হ্যান্ড স্যানিটাইজারগুলির সরবরাহ বাড়াতে নির্মাতা, ফার্মাসির স্টেট বোর্ড এবং জনসাধারণের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে। ’

বহু আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য প্রতিবেদন অনুসারে, আপনি যদি হাত স্যানিটাইজারগুলির বিষাক্ত রাসায়নিকের সংস্পর্শে আসেন তবে আপনার বমি বমি ভাব মাথা ব্যথা, অন্ধত্ব, খিঁচুনি অনুভব হতে পারে।  এমনকি কোমাতেও চলে যেতে পারেন আপনি।  মিথানল সস্তা, সম্ভবত সেই কারণেই কিছু অনভিজ্ঞ রসায়নবিদ এই বিপজ্জনক হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করতে ব্যবহার করছেন।  এটি ব্যবহারের ফলে যে প্রতিক্রিয়া হচ্ছে শরীরে সেদিকে খেয়াল করার সময় এসেছে।  মনে রাখবেন, এফডিএ স্যানিটাইজারে অনুমোদন দেয় না।  সূত্র: দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস