১১:৩৮ এএম, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ১৩ রবিউস সানি ১৪৪১

Developer | ডেস্ক

প্রতিবন্ধীর হাত-পা বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন চোর সন্দেহে

০৮ জুন ২০১৯, ০৬:৩৩


কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে ‘চোর’ সন্দেহে মোশারফ (১৮) নামে এক প্রতিবন্ধী তরুণকে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।  গত বৃহস্পতিবার তাড়াইল উপজেলার তাড়াইল-সাচাইল ইউনিয়নের পূর্ব দড়িজাহাঙ্গীরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় ওইদিন দুপুরে অভিযুক্ত সাজ্জাদ হোসেন হিটলারকে আটক করেছে পুলিশ।  এদিকে তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে মোশারফকে।  জানা যায়, প্রতিবন্ধী তরুণকে বেঁধে নির্যাতনের দৃশ্য মুঠোফোনে ধারণ করে ফেসবুকে পোস্ট করা হলে সেটি ভাইরাল হয়।  এর সূত্র ধরে তাড়াইল থানার ওসি মো. মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে নির্যাতনকারী সাজ্জাদ হাসান হিটলারকে আটক করে। 

তিনি তাড়াইল উপজেলার দড়িজাহাঙ্গীরপুর গ্রামের মৃত নূর হোসেনের ছেলে।  ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, রশি দিয়ে বাঁধা মোশারফের দুই হাত-পা এক ব্যক্তি ধরে রেখেছে।  আর সাজ্জাদ হাসান হিটলার তাকে লাঠি দিয়ে পেটাচ্ছেন। 

চারপাশে দাঁড়িয়ে কিছু লোক এই মারপিট দেখছিলেন।  আর মোশারফ আর্তচিৎকারে তার বাবা-মাকে ডাকছিল।  পুলিশ সূত্র জানায়, মোশারফের বাড়ি উপজেলার তাড়াইল-সাচাইল ইউনিয়নের দক্ষিণ শামুকজানি গ্রামে।  তার বাবার নাম কেন্তু মিয়া।  মোশারফ হোসেন মানসিক প্রতিবন্ধী।  বৃহস্পতিবার পূর্ব দড়িজাহাঙ্গীরপুর গ্রামের সাবেক কাস্টম অফিসার মোখলেসুর রহমান খান শাহানের (এম আর খান) বাড়ির ছাদে গিয়ে নারকেল গাছে ওঠার চেষ্টা করছিল সে। 

ওই বাড়ির লোকজন তাকে আটক করে।  পরে চোর অপবাদ দিয়ে নির্যাতন চালানো হয় তার ওপর।  এ ঘটনায় মোশারফের বড় ভাই সাদ্দাম হোসেন রাতেই ওই বাড়ির মালিক ও কেয়ারটেকারসহ তিনজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।  তাড়াইল থানার ওসি মো. মুজিবুর রহমান জানান, ঘটনার পর পরই আটক করা হয় অভিযুক্ত সাজ্জাদ হাসান হিটলারকে।  অন্যদের ধরতে অভিযান চলছে।