২:০৭ পিএম, ১৫ আগস্ট ২০২০, শনিবার | | ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Developer | ডেস্ক

চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ সে এখন ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

২৭ জুলাই ২০২০, ১০:০৪


লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ওয়াজেদ আলী (৩২) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।  ওই স্কুলছাত্রী সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। 

গতকাল রোববার রাতে এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ওয়াজেদ আলীর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।  ওয়াজেদ আলী একই উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া এলাকার তহিদুল ইসলামের ছেলে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মোহন্ত। 

এ বিষয়ে মেয়েটির বড়বোন বলেন, ‘কয়েকদিন হলো বাবার বাড়িতে এসেছি।  গত পরশুদিন দুপুরে গোসল করতে আমার ছোটবোনকে দেখে সন্দেহ হয়।  এরপর তাকে জিজ্ঞেস করলে সে আমাদের পার্শ্ববর্তী ওয়াজেদের কথা বলেছে।  সে নাকি তাকে বিয়ে করবে এই প্রলোভন দেখিয়ে অবৈধ মেলামেশা করেছে।  আমার ছোটবোনের পেটে বাচ্চা আছে।  সে এ বিষয়ে কিছুই বোঝে না।  শুধু বলল আমাকে বলতে নিষেধ করেছে।  বললে নাকি মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছে। ’

‘আমি বিষয়টি আমার মা-বাবা ও স্বামীকে তাৎক্ষণিক জানাই।  আমার অবুঝ বোনের যে সর্বনাশ করেছে তার কঠিন বিচার চাই’, যোগ করেন ভুক্তভোগীর বড়বোন। 

ওসি সুমন কুমার মোহন্ত বলেন, ‘ওই ছাত্রীর বাবার অভিযোগ, ওয়াজেদ আলী বেশ কিছুদিন ধরে তার মেয়েকে ধর্ষণ করেন।  ঘটনাটি বাহিরে কাউকে জানালে তার মেয়েকে হত্যার হুমকি দেন।  তারা বিষয়টি (অন্তঃস্বত্ত্বা হওয়ার) বুঝতে পেয়ে স্থানীয় একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ওই ছাত্রীর পরীক্ষা করেন।  এতে তার ২৮ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বার ফলাফল আসে। ’

তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় ওই মেয়ের বাবা বাদী হয়ে পাটগ্রাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।  অভিযুক্ত ওয়াজেদ আলীকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশ চেষ্টা করছে এবং মেয়েটিকে সরকারিভাবে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ’